May 27, 2024, 6:18 am

ধুলিহর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

ধুলিহর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

রুহুল কুদ্দু,ধুলিহর প্রতিনিধ: প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামের প্যানেলের নিরঙ্কুশ জয়।
বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা ও কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যে দিয়ে ৮ এপ্রিল সোমবার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ধুলিহর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য পদে প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামের নেতৃত্বে ৫সদস্যের প্যানেলের নিরংকুশ জয় হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

নির্বাচনে প্রিজাইডিং অফিসারের দায়িত্বে থাকা সাতক্ষীরা সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সঞ্জীব কুমার দাস জানান -এবার নির্বাচনে প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি প্যানেল এবং সাবেক সভাপতি এস এম মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের পৃথক আরও একটি প্যানেল অভিভাবক সদস্য পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে মোট ৪০৫ জন ভোটারের মধ্যে ৩৪৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ৮ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ভোট গ্রহণ করা হয়।নির্বাচনে প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামের প্যানেল থেকে অভিভাবক সদস্য পদে মোঃ ইব্রাহিম হোসেন ১৬৯ ভোট, জাকির হোসেন ১৬১ ভোট, ইয়াছিন আলী ১৫২ ভোট, মোঃ মনিরুল ইসলাম ১৫০ ভোট ও সংরক্ষিত মহিলা অভিভাবক সদস্য পদে সাবিনা ইয়াসমিন ১৬৫ ভোট পেয়ে নিরঙ্কুশ ভাবে জয়লাভ করে। অপরদিকে সাবেক সভাপতি এস এম মাহবুবুর রহমানের প্যানেল থেকে হুমায়ুন কবির ১৪৭ ভোট,আক্তারুল ইসলাম ১৪৪ ভোট,শাহাবুদ্দিন ১১৩ ভোট ও নজরুল ইসলাম ১০৪ ভোট ও সংরক্ষিত মহিলা অভিভাবক সদস্য পদে তাছলিমা খাতুন ১৪১ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়।

প্রসঙ্গত,ধুলিহর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের কারণে প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামকে সাময়িক বহিষ্কার করার ফলে শিক্ষা ব্যবস্থা ভেঙে পড়ে। তাছাড়া গত কয়েক দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামকে মারধর ও অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করার একটি ভিডিও ফুটেজ ছড়িয়ে পড়লে এর বিরুপ প্রভাব পড়ে এই নির্বাচনে।জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামকে একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল হাজত খাটানো, মিথ্যা অভিযোগ তুলে চাকরি থেকে সম্পুর্ন অবৈধ ভাবে সাময়িক বহিষ্কার করার কারণে অত্র বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রী ও অভিভাবকদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তারই ফলশ্রুতিতে নির্বাচনে তার প্যানেলের নিরঙ্কুশ জয় হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। উক্ত নির্বাচনে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার হিসাবে দ্বায়িত্ব পালন করেন সদর উপজেলার সহ: যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ূন কবির ও মোঃ মনিরুজ্জামান।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2023 satkhirachitra.com
Design & Developed BY CodesHost Limited