May 21, 2024, 11:26 pm

সুন্দরবন হাইস্কুলে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ভূয়া সর্টিফিকেট দিয়ে নৈশ প্রহরী নিয়োগের অভিযোগ

সুন্দরবন হাইস্কুলে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ভূয়া সর্টিফিকেট দিয়ে নৈশ প্রহরী নিয়োগের অভিযোগ

রমজাননগর (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের যতীন্দ্রনগরে সুন্দরবন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে সুফিয়ান গাজী নামের এক ব্যক্তিকে ভূয়া সার্টিফিকেট দিয়ে বিদ্যালয়ে পাতানো নিয়োগের মাধ্যমে নৈশ প্রহরী পদে নিয়োগ দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সুফিয়ান গাজীর পিতার নাম নওশের আলী গাজী এবং মাতার নাম তায়মা বেগম। তার বাড়ি উপজেলার জেলেখালী গ্রামে। সুফিয়ান গাজী ১৯৯৯ সালে সুন্দরবন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয় এবং বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। কিন্তু বর্তমানে সুন্দরবন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: মোয়াজ্জেম হোসেন ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এসএম রবিউল ইসলামের যোখসাজসে বড় অংকের টাকার বিনিময়ে ভর্তি খাতায় তার জন্ম তারিখ কলম দিয়ে কেটে বয়স কমিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২০০০ সালে ৭ম শ্রেণিতে অধ্যায়ন করার কথা থাকলেও সে কোন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি। অথচ, তাকে ২০০১ সালে ৯ম শ্রেণি উত্তীর্ণ দেখিয়ে প্রধান শিক্ষক মো: মোয়াজ্জেম হোসেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এসএম রবিউল ইসলামের যোখসাজে ভূয়া সার্টিফিকেট প্রদান করেছেন। তিনি এধরনের ভূয়া সার্টিফিকেট বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে অর্থের বিনিময়ে বিক্রয় করে থাকেন বলে জানা গেছে। উক্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছেন মো: ইসমাইল হোসেন ও জিএম সালাউদ্দীন আহমেদ, সাবেক সভাপতি সুন্দরবন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বিদ্যালয়ের অভিভাবকবৃন্দসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের এহেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছেন বিদ্যালয়ের অভিভাবকবৃন্দ ও এলাকাবাসী।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2023 satkhirachitra.com
Design & Developed BY CodesHost Limited