May 21, 2024, 11:26 pm

সাতক্ষীরায় ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে যাত্রীবাহী বাস ডোবায়, আহত অন্তত ৪০

সাতক্ষীরায় ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে যাত্রীবাহী বাস ডোবায়, আহত অন্তত ৪০

সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ত্রিশমাইল নামের স্থানে সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কে পাথরভর্তি ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষে অন্তত ৪০ জন আহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার বেলা সোয়া একটার দিকে মুখোমুখি সংঘর্ষের পর যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকটি ডোবায় পড়লে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ব্যক্তিদের মধ্যে ১১ জনকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। অন্যদের বিভিন্ন ক্লিনিকে নেওয়া হয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলার দমদম গ্রামের মোসলেমা খাতুন খুলনা থেকে ওই যাত্রীবাহী বাসে করে সাতক্ষীরায় আসছিলেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, বেলা সোয়া একটার দিকে ত্রিশমাইল এলাকায় পৌঁছালে সাতক্ষীরার দিক থেকে আসা একটি পাথরভর্তি ট্রাকের সঙ্গে বাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাস ও ট্রাকটি সড়কের দক্ষিণ পাশে ডোবায় গিয়ে পড়ে। এতে বাসে থাকা ৪৫-৫০ যাত্রীর মধ্যে অধিকাংশই কমবেশি আহত হন। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে তাঁদের উদ্ধার করেন

দুর্ঘটনার পর সড়কের পাশে একটি খাদে পড়ে আছে ট্রাক। আজ শুক্রবার দুপুরে সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের তালা উপজেলার ত্রিশমাইল এলাকায়ছবি: প্রথম আলো

স্থানীয় বাসিন্দা আলতাফ হোসেন বলেন, বাসটি ডোবায় পড়ে গেলে যাত্রীরা কান্নাকাটি শুরু করেন। স্থানীয় লোকজন দ্রুত এসে কয়েকজনকে উদ্ধার করার পর ফায়ার সার্ভিস দল সাতক্ষীরা থেকে ঘটনাস্থলে থেকে পৌঁছায়।

সাতক্ষীরা ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার (দলনেতা) মো. ফসিয়ার উদ্দিন বলেন, তাঁরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে ৩০-৩৫ জনকে উদ্ধার করেছেন। সবাই কমবেশি আহত হন। তাঁরা আসার আগেই স্থানীয় লোকজন কয়েকজনকে উদ্ধার করে নিয়ে যান। বেলা আড়াইটার সময় বাসের মধ্যে আটকে থাকা দুজনকে উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছিল।

আহত বাসযাত্রীদের মধ্যে কয়েকজনের নাম জানা গেছে। তাঁরা হলেন খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার শাহাজাদা (৪০), সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার মজগুনী গ্রামের মিতা (৫০), কালীগঞ্জ উপজেলার দমদম গ্রামের মোসলেমা খাতুন (৩৫), তাঁর মেয়ে আয়শা (৪), সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কুশখালি গ্রামের শরিফা খাতুন (৩৫) ও তাঁর মেয়ে হাসনা হেনা (২২), তালা উপজেরা কামাশডাঙ্গা গ্রামের কৃষ্ণরানী মণ্ডল (৩০) ও ভারতের নাগরিক নিখিল (৫৬)।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক মমতাজ মুজিদ বলেন, সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ১১ জন ভর্তি হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে সদর উপজেলার কামাশডাঙ্গা কৃষ্ণারানী মণ্ডলকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। অন্য ১০ জনের মধ্যে ১ শিশু, ১ বৃদ্ধাসহ চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব দেবনাথ বলেন, দুর্ঘটনায় ডাম্পার ট্রাকটি সড়কের পাশে একটি খাদে পড়লেও সেটির চালক ও শ্রমিকেরা হতাহত হননি। তবে বাসযাত্রীদের প্রায় সবাই কমবেশি আহত হয়েছেন। বাসের মধ্যে আটকে থাকা দুজনকে ফায়ার সার্ভিস দল উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2023 satkhirachitra.com
Design & Developed BY CodesHost Limited