কনক হত্যার ছয় বছর পর বিএনপি নেত্রীকে জড়িয়ে (দ্রুত বিচার) আইন ট্রাইব্যুনালে মামলা

0
8

স্টাফ রিপোটার:  আওয়ামীলীগ কর্মী কনক আহমেদ টুটুল হত্যার ৬ বছর পর (দ্রুত বিচার)  আইন ২০০২ ট্রাইব্যুনালে আজ  মঙ্গলবার মামলা দায়ের করেছে জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে স্থানীয় সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার।

মামলায় এজাহারভুক্ত আসামি করা হয় চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির সমাজকল্যাণ সম্পাদিকা জান্নাতুল বাকী, তার স্বামী মুহাম্মদ আমিনুল হক ও চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির নেতা  মোঃ কিরণকে।

“বাংলাদেশ সংবিধানের ৩৩ (৩) (১)  অনুচ্ছেদ অনুযায়ী  কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইন, ১৯৭৪ এর  (৩) ধারা মোতাবেক  যদি কোন ব্যক্তিকে সরকার চান তবে তাকে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট যেকোনো সময় গ্রেফতার করতে পারেন” ।

প্রসঙ্গত  ১৯ মার্চ ২০১৩ সালে  ছাত্রদল নেতা কিরণ ও তার সহযোগীদের হাতে  আওয়ামী লীগ কর্মী কনক আহমেদ টুটুলকে (২২) কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠে। বর্তমানে মামলাটি চুয়াডাঙ্গা জেলা দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন।

আজ মঙ্গলবার ২০ আগস্ট ২০১৯ সকালে জেলা দায়রা জজ আদালতকে  মোহাম্মদ নাসিম আহমেদ আদালতে অভিযোগ গঠনের দিন ধার্য করেন। কিন্তু টুটুল হত্যা মামলাটি জেলা জজ দায়রা আদালত থেকে (দ্রুত বিচার) আইন ২০০২ ট্রাইব্যুনাল-১ এ স্থানান্তরের নির্দেশ জারি হওয়ায় বিচারক মামলাটি ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরের নির্দেশ দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here